ভাষাকে বিকৃত করবেন না : প্রধানমন্ত্রী

ভাষাকে বিকৃত করবেন না : প্রধানমন্ত্রী

২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ (গ্লোবটুডেবিডি):  ইংরেজি উচ্চারণে বাংলা বলা সংক্রমনের মতো হয়ে গেছে। ভাষাকে বিকৃত করবেন না। টেকনোলজি ও যোগাযোগের জন্য অন্য ভাষা শিখতে হবে, তবে মাতৃভাষা বাংলা ভুলে নয়। বললেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।মঙ্গলবার আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনিস্টিটিউটে মহান শহিদ ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে ৫ দিনব্যাপী অনুষ্ঠান উদ্বোধনকালে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাঙালি যা কিছু অর্জন করেছে তা আত্মত্যাগের বিনিময়ে। একুশ আমাদের শিখিয়েছে মাথা নত না করা, যার চেতনায় স্বাধীনতা এসেছে। শহিদ মিনারে বারবার আঘাত এসেছে কিন্তু ইতিহাস বিকৃত করা যায়নি।

তিনি বলেন, মাতৃভাষার মর্যাদা বাড়াতে বিএনপি কোনো উদ্যোগ নেয়নি। আওয়ামী সরকারের শুরু করা মাতৃভাষা ইনিস্টিটিউটের কাজও বন্ধ করে দেয় তারা। তাদের কাছে মাতৃভাষা গুরুপ্তপূর্ণ নয়।
আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস নিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ৯৬ সালে কানাডায় কিছু মানুষ মাতৃভাষা দিবস নিয়ে উদ্যোগ নেয়। যার মধ্যে দু’জন বাঙালি ছিল রফিক ও সালাম। পরে আওয়ামী সরকার উদ্যোগ নিয়ে ইউনেস্কোর মাধ্যমে মাতৃভাষা দিবস পালনের উদ্যোগ নেয়া হয়।
মাতৃভাষাকে জাতিসংঘের দাপ্তরিক ভাষা তৈরিতে কিছুটা বেগ পোহাতে হবে। তবে আমরা প্রস্তাব দিয়ে রেখেছি। একদিন হয়তো এ অর্জন আমরা করবো।

তিনি বলেন, ২০১০ সালে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা আইন করা হয়। আর এ বছরে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনিস্টিটিউট উদ্বোধন করা হয়। ইনিস্টিটিউট বিশ্বের বিভিন্ন দেশের মাতৃভাষা নিয়ে গবেষণা করছে। ভাষার গোড়াপত্তন তুলে ধরার চেষ্টা চালাচ্ছে।

ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠির ভাষা নিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, অনেক মাতৃভাষা হারিয়ে গেছে।কিন্তু আমরা ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠিকে তাদের মাতৃভাষা ধরে রাখার সুযোগ করে দিয়েছি। দেশের ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠির ভাষা সংরক্ষণ করার চেষ্টা চালানো হচ্ছে। এ বছর ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠিভাষীদের ২৫ হাজার বই বিতরণ করা হয়েছে। যাতে করে তারা তাদের মাতৃভাষা ধরে রাখতে পারে।

Please follow and like us:
Previous ‘আমিও মুসলিম’ স্লোগানে প্রকম্পিত নিউইয়র্ক
Next দেশে প্রথম জিরা চাষ গাংনীতে

You might also like

০ Comments

No Comments Yet!

You can be first to comment this post!

Leave a Reply