বেলুন ব্যবহারে সাবধানতা

বেলুন ব্যবহারে সাবধানতা

২৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ (গ্লোবটুডেবিডি): বেলুন জিনিসটি দেখতে খুব মজার, কিন্তু এটিই হতে পারে আপনার সন্তানের স্থায়ীভাবে শ্রবণক্ষমতা হ্রাসের কারণ।

কোনো জন্মদিনের অনুষ্ঠানে বা পার্টিতে বা এ ধরনের কোনো অনুষ্ঠানে রঙ বেরঙ এর বেলুন থাকবে না, তা চিন্তাই করা যায় না।

এগুলো কোনো আনন্দের দিন উদযাপনের ক্ষেত্রে প্রধানতম উপাদান। বেলুনগুলো বর্ণিলভাবে সাজানো থাকে বা চারিদিকে ভাসতে থাকে। কিন্তু এই ফিচারটি পড়ার পর আপনি আপনার সন্তানের জন্মদিনে বেলুনের ব্যবহারে দুইবার ভাববেন, কারণ এই বেলুন আপনার সন্তানের স্থায়ীভাবে শ্রবণ ক্ষমতা হ্রাসের কারণ হতে পারে।

ইউনিভার্সিটি অব আলবার্টার গবেষকরা একটি বেলুন ফুটিয়ে দিলে যে শব্দ দূষণ হয় তার মাত্রা নিরূপণ করেন। তারা তিন পদ্ধতিতে বেলুনগুলো ফাটান- পিনের সাহায্যে, চাপ প্রয়োগ করে এবং ততক্ষণ পর্যন্ত বায়ু ঢুকিয়ে যতক্ষণ না পর্যন্ত বেলুনটি বিস্ফোরিত হয়।

এর মধ্যে বায়ু ঢুকিয়ে ফাটানো অর্থাৎ মুখ দিয়ে বেলুন ফোলানোর সময় তা বিস্ফোরিত হলে সর্বোচ্চ শব্দ হয়। গবেষকরা  দেখেছেন এ সময় ১৬৮ ডেসিবল পর্যন্ত শব্দ তৈরি হতে পারে। যা একটি শর্টগান এর শব্দের চেয়ে বেশি এবং ৩৫৭ ম্যাগনাম রিভলবার এর সমতুল্য। এই মাত্রার শব্দ একজন প্রাপ্ত বয়স্কের জন্যও অনিরাপদ। অন্য দুই পদ্ধতিতে বেলুন ফাটলে কিছুটা কম শব্দ উৎপন্ন করে কিন্তু তারপরও তা বিবেচ্য বিষয়- বলেছেন গবেষণার সহ সম্পাদক ডাইলান স্কট, বিএসসি, এমএসসি।

এটা ঠিক যে, বেলুন এমন কোনো উপাদান নয় যে তা প্রাত্যহিক জীবনে হুমকি বয়ে নিয়ে আসবে। বরং এটি মজার ও মন ভালো করে দেবার উপাদান বটে। কিন্তু সম্ভাব্য শ্রবণ ঝুঁকির সমাধান হতে পারে বাচ্চাদের বেলুন ফাটানো থেকে বিরত রেখে। কারণ এই শব্দ কানের ভেতরের লোমগুলো ধ্বংস করে ফেলে দেয়, যা পরবর্তীতে আর গজায় না, ফলে এটি স্থায়ীভাবে শ্রবণশক্তি হ্রাসের কারণ হয়ে দাড়ায়।

তাই এরপর থেকে যখন আপনি কোনো পার্টিতে যাবেন তখন আপনার দায়িত্ব হবে তাদের বেলুন ফাটানোতে নিরুৎসাহিত করা। তাদের উৎসাহিত করুন মজাদার এপেটাইজার আর ডেজারটে। কারণ বেলুন থেকে খাবারই বেশি আকর্ষণীয়।

Share Button
Previous সিরিয়ায় আত্মঘাতী হামলা, নিহত ২৯
Next বঙ্গবন্ধু বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে বাসচাপায় ছাত্রী অাহত

You might also like

০ Comments

No Comments Yet!

You can be first to comment this post!

Leave a Reply