বহুমাত্রিক লেখক, কবি সাযযাদ কাদিরের ইন্তেকাল

বহুমাত্রিক লেখক, কবি সাযযাদ কাদিরের ইন্তেকাল

ঢাকা ৬ এপ্রিল ২০১৭ (গ্লোবটুডেবিডি):  বহুমাত্রিক লেখক, কবি সাযযাদ কাদির আজ দুপুরে ইন্তেকাল করেছেন। ইন্না লিল্লাহি ওয় ইন্না ইলাইহি রাজেউন।

সাযযাদ কাদির (জন্ম: ১৪ এপ্রিল, ১৯৪৭) বাংলাদেশের প্রখ্যাত কবি, বহুমাত্রিক লেখক, শিক্ষক ও সাংবাদিক। তিনি বাংলা সাহিত্যের ষাটের দশকের সূচনা পর্বের অন্যতম অগ্রগণ্য কবি, কথাসাহিত্যিক, নাট্যকার, গবেষক ও প্রাবন্ধিক হিসেবে খ্যাতিমান।
তিনি ১৯৪৭ সালের ১৪ই এপ্রিল টাঙ্গাইল জেলার মিরের বেতকা গ্রামে তাঁর মাতুলালয়ে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর পৈতৃক নিবাস টাঙ্গাইল জেলার দেলদুয়ার উপজেলায়।
সাযযাদ কাদির ১৯৬২ সালে বিন্দুবাসিনী উচ্চ বিদ্যালয় থেকে মাধ্যমিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বাংলা ভাষা ও সাহিত্যে ১৯৬৯ সালে স্নাতক (সম্মান) এবং ১৯৭০ সালে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন।
দেশ স্বাধীন হওয়ার পর ১৯৭২ সালের ১১ই ফেব্রুয়ারী তিনি করটিয়ার সা’দত কলেজে বাংলা বিভাগে শিক্ষক হিসেবে যোগ দেন। ১৯৭৬ সালের ১৪ই জুলাই তিনি শিক্ষকতা ত্যাগ করে সাপ্তাহিক বিচিত্রা পত্রিকায় সহকারী সম্পাদক হিসেবে যোগ দিয়ে সাংবাদিকতা পেশায় আত্মনিয়োগ করেন। ১৯৭৮ সালে তিনি রেডিও পেইচিং-এ ভাষা বিশেষজ্ঞ হিসেবে যোগ দেন। ১৯৮২-৮৫ সালে তিনি ছিলেন দৈনিক সংবাদের সহকারী সম্পাদক। পরে তিনি ছিলেন আগামী-তারকালোক পত্রিকার সম্পাদক। ১৯৯২-৯৫ সালে দৈনিক দিনকালের বার্তা সম্পাদক ছিলেন। ১৯৯৫-২০০৪ সাল পর্যন্ত ছিলেন বাংলাদেশ প্রেস ইনিস্টিটিউটের পরিচালক ।
সাযযাদ কাদির শুধু মাত্র কবিতাই নয় গল্প, উপন্যাস, নাটক, প্রবন্ধ-গবেষণা, শিশুতোষ, সম্পাদনা, সঙ্কলন, অনুবাদ সহ বিভিন্ন বিষয়ে ৮০টির বেশি গ্রন্থ রচনা করেছেন।
পশ্চিমবঙ্গের নাথ সাহিত্য ও কৃষ্টি কেন্দ্রিক সাহিত্যপত্রিকা ‘শৈবভারতী’র ৩৪তম বর্ষপূর্তি উপলক্ষে প্রবন্ধ সাহিত্যে সাযযাদ কাদিরকে শৈবভারতী পুরস্কার দেয়া হয় । এর আগে ২০০৯ সালে তিনি পশ্চিমবঙ্গের বিষ্ণু দে পুরস্কারে সম্মানিত হন। ২০১৬ সালে তিনি পেয়েছেন জাতীয় কবিতা পরিষদ পুরষ্কার

Share Button
Previous সিএসইসিডিভি’র কমিটি গঠন: রাফি সভাপতি, উজ্জল সম্পাদক
Next ‘ফিরো এসো মাশরাফি’ : নড়াইলে মানববন্ধন, অবরোধ

You might also like

০ Comments

No Comments Yet!

You can be first to comment this post!

Leave a Reply