যারা ধর্ম নিয়ে রাজনীতি করে, এটা তাদের অভিযোগ: কাদের

যারা ধর্ম নিয়ে রাজনীতি করে, এটা তাদের অভিযোগ: কাদের

১৩ এপ্রিল ২০১৭ (গ্লোবটুডেবিডি):  ‘আওয়ামী লীগ সাম্প্রদায়িক শক্তির সঙ্গে আপোষ করবে, ধর্ম নিয়ে রাজনীতি করবে – এটা তাদেরই অভিযোগ যারা ধর্ম নিয়ে রাজনীতি করে।’

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এ কথা বলেছেন।

তিনি আরো বলেন, ‘আওয়ামী লীগ কোনো ধর্মীয় রাজনৈতিক গোষ্ঠী বা কোনো সাম্প্রদায়িক শক্তির সঙ্গে আপোষ করেছে, এটা হাস্যকর।’

বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজধানীর ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এক প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন।

বুধবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভারত সফর নিয়ে বিএনপি চেয়ারপারস খালেদা জিয়ার সংবাদ সম্মেলনের জবাবে এই সংবাদ সম্মেলন করে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘বাংলাদেশের রাজনীতিক ও সামাজিক যে বাস্তবতা, আমরা যারা রাজনীতি করি, আমাদেরকে রিয়েলিস্টিক অ্যাপ্রোচ নিয়ে জনগণের আবেগ-অনুভূতির সঙ্গে সম্পর্ক রেখে বাস্তবমুখী সিদ্ধান্ত নিতে হয়। আর যারা এ ধরনের সিদ্ধান্ত নিতে পারে, তারাই এদেশের সত্যিকারের প্রগতিশীল রাজনীতি করে। প্রগতির সামাজিক বাস্তবতা রাজনৈতিক বাস্তবতা থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে চলতে পারে না।’

‘হেফজাতের কোন ব্যক্তি কী বললো, হেফাজতের আদর্শের সঙ্গে বা তাদের সঙ্গে কোনো প্রকার আদর্শিক সামঞ্জস্যের কোনো বিষয়ে আমাদের সঙ্গে আলোচনা হয়নি। বাংলাদেশে কওমি মাদ্রাসার ১৪ লাখ ছাত্র-ছাত্রী আছে এবং ৭০ হাজার কওমি মাদ্রাসা আছে, এটা হলো বাস্তবতা। এদেরকে আমরা অবজ্ঞা করতে পারি না। তাদেরকে আমরা সরকারি স্বীকৃতি থেকে বিচ্ছিন্ন রাখতে পারি না,’ বলেন তিনি।

ওবায়দুল কাদের আরো বলেন, ‘আমরা বাংলাদেশের স্বার্থে, বাংলাদেশের জনগণের যে আবেগ-অনুভূতি, একটা বৃহৎ জনগোষ্ঠীর ভবিষ্যৎকে সরকার হিসেবে অনিশ্চয়তায় ঠেলে দিতে পারি না। তাদের শিক্ষার একটা স্বীকৃতি আমাদেরকে দেওয়া উচিত। এটা বাস্তবভিত্তিক ন্যায়ানুগ একটা সিদ্ধান্ত। এখনো কোনো ধর্মীয় রাজনৈতিক বা এখানে কোনো সাম্প্রদায়িক শক্তির সঙ্গে আপোষ হয়েছে, এটা হাস্যকর। আওয়ামী লীগ সাম্প্রদায়িক শক্তির সঙ্গে আপোষ করবে, আওয়ামী লীগ ধর্ম নিয়ে রাজনীতি করবে, এটা আসলে যারা ধর্ম নিয়ে রাজনীতি করে তাদেরই অভিযোগ।’

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘এই যে বেগম জিয়া, তারা তো ধর্ম নিয়ে রাজনীতি করে। এদেশে ধর্ম নিয়ে তারা কত অধর্মের কাজ করেছে। আজকে উগ্রবাদী সাম্প্রদায়িক শক্তি, এই শক্তির উসকানি দাতা কারা? এ দেশে এদের পৃষ্ঠপোষক কারা? এটা সবাই জানে। সারা দুনিয়া জানে। নতুন করে বলার কিছু নেই।’

অপর এক প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, মঙ্গল শোভাযাত্রা বাঙালির ঐতিহ্যের অংশ। এটা নিয়ে নতুন করে বলার কিছু নেই।’

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য মুকুল বোস, সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ড. আব্দুর রাজ্জাক, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ, জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, এ কে এম এনামুল হক শামীম, দপ্তর সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিবিয়য়ক সম্পাদক ইঞ্জি. আব্দুস সবুর, সাংস্কৃতিক সম্পাদক অসীম কুমার উকিল, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণবিষয়ক সুজিত রায় নন্দী, বন ও পরিবেশবিষয়ক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন, কৃষিবিষয়ক সম্পাদক ফরিদুন্নাহার লাইলী, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক আফজাল হোসেন, শ্রম সম্পাদক হাবিবুর রহমান সিরাজ, উপদপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, কার্যনির্বাহী সদস্য এস এম কামাল, আনোয়ার হোসেন প্রমুখ।

Please follow and like us:
Previous পাহাড়ে চলছে বৈসাবি উৎসব
Next টেকনাফে বিজিবির সঙ্গে গোলাগুলি নিহত ১

You might also like

০ Comments

No Comments Yet!

You can be first to comment this post!

Leave a Reply