নাইজেরিয়ায় সমকামী বিয়ে, আটক ৫৩

নাইজেরিয়ায় সমকামী বিয়ে, আটক ৫৩

২২ এপ্রিল ২০১৭ (গ্লোবটুডেবিডি):  উত্তর নাইজেরিয়ার কাদুনাতে সমকামী বিয়ের অনুষ্ঠান  আয়োজনের অভিযোগে ৫৩ জনকে আটক করা হয়েছে। পরে তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। তবে গত শনিবার আটক হওয়া ব্যক্তিরা তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। তাদের আইনজীবী বলছেন, অবৈধভাবে ওই ৫৩ জনকে আটক করা হয়েছে।

ছেদিয়া-জারিয়ার আদালতে ওই ৫৩ জন ষড়যন্ত্র, বেআইনি সমাবেশ এবং বেআইনি সমাজে জড়িত থাকার অভিযোগে দোষী সাব্যস্ত হয়নি। ফলে আদালত তাদেরকে জামিনে মুক্তি দিয়ে আগামি ৮ মে মামলার শুনানির দিন ধার্য্য করেছেন।

প্রতিরক্ষাবিষয়ক আইনজীবী ইউনুস উমার জানান, তাদের বেশিরভাগ অভিযুক্তই শিক্ষার্থী। স্থানীয় সংবাদপত্রের বরাত দিয়ে বলা হয়েছে, তাদেরকে ২৪ ঘণ্টারও বেশি সময় ধরে অবৈধভাবে আটক রাখা হয়েছে।

সামাজিকভাবে রক্ষণশীল নাইজেরিয়াতে সমকামিতা নিষিদ্ধ।এ ছাড়া দেশটিতে সমকামিতার দায়ে  ১৪ বছরের কারাদণ্ডের বিধান রয়েছে। দেশটির দক্ষিণে প্রভাবশালী খ্রিষ্টান ধর্মপ্রচার আন্দোলন এবং উত্তরে ইসলামি আইনের জন্য শক্তিশালী জনসমর্থন রয়েছে। নাইজেরিয়ার খ্রিষ্টান, মুসলমান উভয়ে সমকামিতার বিরোধী।

এর আগে ২০১৪ সালের জানুয়ারিতে বাউচি প্রদেশের ইসলামি পুলিশ বেশ কিছু স্থানে অভিযান চালিয়ে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের অভিযোগে ১২ জনকে আটক করেছিল।তাদের মধ্যে কয়েকজনকে জামিনের শুনানির জন্য শরিয়া আদালতে হাজির করা হলে বিক্ষুব্ধ জনতা দ্রুত ও কঠোর শাস্তি দাবি করেন। এরপর  তারা আদালতে পাথর নিক্ষেপ করে শুনানি বন্ধ করে দেন।

বিক্ষুব্ধ জনতাকে ছত্রভঙ্গ করে দিতে গুলি চালানোর পর ওই আসামিদের হাজতে ফিরিয়ে নিয়ে  গেছে দেশটির আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।

হিউম্যান রাইটস ওয়াচ (এইচআরডব্লিউ)- এর মতে,  ২০১৪ সালে সমকামিতা নিষিদ্ধের পর সমকামী, উভকামী এবং ট্রান্সজেন্ডারের (এলজিবিটি) মানুষের সঙ্গে কিছু কিছু পুলিশ কর্মকর্তা এবং জনসাধারণ খারাপ আচরণ করতে থাকে।

এইচআরডব্লিউর ২০১৬ সালের একটি রিপোর্ট অনুযায়ী, গণসহিংসতা, নির্বিচারে গ্রেফতার, আটক রেখে নির্যাতন, যৌন সহিংসতা সমকামীদের প্রতি রুটিনে পরিণত হয়েছে।

Share Button
Previous ভেঙে গেছে ৫২টি বেড়িবাঁধ, নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত
Next দীর্ঘ ব্যাটারি লাইফ সুবিধার আসুসের নতুন স্মার্টফোন

You might also like

০ Comments

No Comments Yet!

You can be first to comment this post!

Leave a Reply