কনফেডারেশনস কাপ: চিলিকে হারিয়ে শিরোপা জিতল জার্মানি

কনফেডারেশনস কাপ: চিলিকে হারিয়ে শিরোপা জিতল জার্মানি

নবীন চেহারার জার্মানির সঙ্গে পেরে উঠলো না চিলি। কোপা আমেরিকার দুইবারের চ্যাম্পিয়নদের ১-০ গোলে হারিয়ে প্রথমবারের মতো কনফেডারেশনস কাপের শিরোপা জিতেছে কোচ জোয়াকিম লো-এর শিষ্যরা।

২০তম মিনিটে ফাইনালে ব্যবধান গড়ে দেয়া একমাত্র গোলটি করেন লার্স স্টিনডল।

কোপা আমেরিকায় দুটি শিরোপাই চিলি জিতেছিল টাইব্রেকারে আর্জেন্টিনাকে হারিয়ে। অসংখ্য সুযোগ হাতছাড়া করে এবার খেলা ততদূর নিতেই পারেননি আলেক্সিস সানচেস-আর্তুরো ভিদালরা।

প্রথমবারের মতো কনফেডারেশনস কাপে খেলতে এসেই ফাইনালে পৌঁছে যাওয়া চিলি রোববার সেন্ট পিটার্সবার্গে শুরু থেকেই চেপে ধরে বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের রক্ষণকে। সপ্তম মিনিটে ভিদাল, একাদশ মিনিটে এদোয়ার্দো ভার্গাস বাইরে মেরে সুযোগ হাতছাড়া করেন।

২০তম মিনিটে জার্মানির ত্রাতা মার্ক-আন্ড্রে টের স্টেগেন। দারুণ একটি আক্রমণ কোনোমতে ঠেকান তরুণ এই গোলরক্ষক।

খেলার ধারার বিপরীতে স্টিনডলের গোলটি একরকম চিলির উপহার। টিমো ভের্নার মার্সেলো দিয়াসকে ফাঁকি দিলে সামনে ছিলেন কেবল ক্লাওদিও ব্রাভো। এগিয়ে আসা এই গোলরক্ষককে পরাস্ত করে জালে পাঠানোর বদলে জার্মান ফরোয়ার্ড বল বাড়ান অরক্ষিত স্টিনডলকে। ফাঁকা জালে বল পাঠানোর অমন সহজ সুযোগ হাতছাড়া করেননি তিনি।

পিছিয়ে পড়া চিলি আক্রমণের ধার আরও বাড়ায়, সুযোগও তৈরি করে। কিন্তু জমাট রক্ষণ ভাঙতে পারেনি। একদিকে যেন চীনের প্রাচীর হয়ে উঠেছিলেন টের স্টেগেন, অন্য দিকে ডি-বক্সের আশেপাশে গিয়ে তালগোল পাকাচ্ছিলেন চিলির খেলোয়াড়রা।

৮১তম মিনিটে মাঠে আসার কিছুক্ষণের মধ্যে সমতা আনার সবচেয়ে সহজ সুযোগ পেয়েছিলেন আনহেলো সেহাল। কিন্তু বারের অনেক ওপর দিয়ে মেরে হতাশ করেন এই ফরোয়ার্ড। যোগ করা সময়ে সানচেসের দারুণ ফ্রি-কিক ঠেকিয়ে দেন টের স্টেগেন।

প্রতি আক্রমণে সুযোগ তৈরি করে জার্মানিও। কিন্তু ব্রাভোকে আর পরাস্ত করতে পারেনি তারা। প্রথমবারের মতো ফাইনালে উঠেই শিরোপা জয়ের আনন্দে মাঠ ছাড়ে জার্মানি।

Share Button
Previous ছয় মাসে দেশে বিচারবহির্ভূত হত্যা ৮৫
Next রাষ্ট্রপতির সাথে প্রধানমন্ত্রীর সাক্ষাৎ

You might also like

০ Comments

No Comments Yet!

You can be first to comment this post!

Leave a Reply