রূপচর্চায় চিনি

রূপচর্চায় চিনি

১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৭ (গ্লোবটুডেবিডি): চিনি সাধারণত চা, কফি বা মিষ্টিজাতীয় খাবার তৈরি করতে ব্যবহার করা হয়। চিনি মানেই খাবারের মিষ্টতা। শুনে হয়তো অবাক হচ্ছেন। মিষ্টিজাতীয় এই উপাদান আবার কীভাবে রূপচর্চায় কাজে লাগতে পারে। হ্যাঁ অবিশ্বাস্য হলেও সত্যি রূপচর্চায় চিনির জুড়ি নেই।চিনি বাড়িয়ে তোলে ত্বকের সৌন্দর্য।

সপ্তাহে একদিন অবশ্যই এই চিনি দিয়ে ঘরেই নিতে পারেন ত্বকের যত্ন। আসুন জেনে নেই চিনি দিয়ে কীভাবে নেবেন ত্বকের যত্ন।

১. স্কার্বিং করুন

সপ্তাহে কমপক্ষে একদিন অবশ্যই স্কার্বিং করুন। এক চা চামচ মধু এক চা চামচ সাধারণ চিনি মিশিয়ে মুখ ভিজিয়ে পুরো মুখে লাগিয়ে ম্যাসাজ করে দু’মিনিট পর উষ্ণ গরম পানিতে মুখ ধুয়ে ফেলুন।স্কার্বিং করার পর উষ্ণ গরম পানির ঝাঁপটা দিন। এরপর ঠাণ্ডা পানির ঝাঁপটা দিন ভালোভাবে। দু’মিনিট এভাবে পানির ঝাঁপটা দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। এই দু’মিনিটেই আপনার ত্বকের জমে থাকা ডেডসেল ঝরে পড়বে। এরপর নরম তোয়ালে দিয়ে মুছে নিন। পছন্দ অনুযায়ী ময়েশ্চারাইজিং করে নিতে ভুলবেন না।

২. মরা চামড়া :
মরা চামড়া চেহারার উজ্জ্বলতা কমিয়ে দেয়। এই মরা চামড়া তুলতে ভালো কাজ করে চিনি। এক চা চামচ গরম নারকেল তেলের সঙ্গে দু’চা চামচ চিনি মিশিয়ে মুখে স্ক্রাব করুন। হালকা গরম পানিতে মুখ ধুয়ে ফেলুন। মরা চামড়া উঠে গিয়ে ত্বক উজ্জ্বল হবে।

৩. যে কোনো ত্বকে লাগাতে পারেন চিনি :

সব ধরনের ত্বকেই দারুণ স্ক্রাব হিসেবে কাজ করে চিনি। অলিভ অয়েলের সঙ্গে কয়েক টামচ চিনি ও কয়েক ফোঁটা লেবুর রস মিশিয়ে নিন। এই মিশ্রণ মুখে লাগিয়ে রাখুন ১৫ মিনিট। হালকা গরম পানিতে আলতো করে স্ক্রাব করে তুলে ফেলুন।

৪. প্রেগন্যান্সি :
প্রেগন্যান্সির পর বা হঠাৎ করে ওজন কমে গেলে ত্বকে স্ট্রেচ মার্ক দেখা দেয়। চামড়ার ওপর ফাটা ফাটা দাগ দেখতে বিশ্রি লাগে। এই স্ট্রেচ মার্ক তুলতে পারে চিনি। কফি, চিনি, আমন্ড তেল ও মধু মিশিয়ে রোজ মালিশ করুন। নিয়মিত করলে ধীরে ধীরে হালকা হয়ে যাবে স্ট্রেচ মার্ক।

৫. ঔজ্জ্বল্য :
চেহারার ঔজ্জ্বল্য ধরে রাখতে ত্বকের হাইড্রেশন করা প্রয়োজন। তিলের তেল, চিনি ও কয়েক ফোঁটা ইউক্যালিপটাস অয়েল মিশিয়ে নিন। এই প্যাক মুখে লাগিয়ে রাখুন ১০ থেকে ১৫ মিনিট। হালকা গরম পানিতে মুখ ধুয়ে ময়শ্চারাইজার, ক্রিম বা লোশন লাগিয়ে নিন।

৬. ঠোঁট ফাটা :
ঠোঁট ফাটার সমস্যা থাকলে চিনি ও বিটের রস একসঙ্গে মিশিয়ে নিন। এই মিশ্রণ ঠোঁটে মাসাজ করুন। হালকা গরম পানিতে ধুয়ে ফেলুন। এতে ফাটা কমে ঠোঁট নরম তো হবেই, লাল রঙও ধরে রাখবে বিটের রস।

Share Button
Previous রোহিঙ্গাদের দেখতে ৪০ দেশের প্রতিনিধি উখিয়ায়
Next রোহিঙ্গাদের জন্য পাঠানো বিএনপির ২২টি ত্রাণবাহী ট্রাক আটক

You might also like

০ Comments

No Comments Yet!

You can be first to comment this post!

Leave a Reply