হাঙরের মুখে চিকিৎসকের ঘুষি

হাঙরের মুখে চিকিৎসকের ঘুষি

১৪ নভেম্বর ২০১৭ (গ্লোবটুডেবিডি): চার্লি ফ্রাই, ২৫ বছর বয়সি একজন ব্রিটিশ ডাক্তার। অস্ট্রেলিয়াতে সার্ফিং করার সময় তিনি প্রায় তিন মিটার একটি সাদা হাঙরের সম্মুখীন হন এবং বেঁচেও ফিরে আসেন।

সোমবার নিউ সাউথ ওয়েলস সেন্ট্রাল কোস্টের এভোকা বিচে সার্ফিং করার সময় চার্লি এই হাঙরের মুখোমুখি হন। হাঙরটি চার্লির ডান হাতে কামড় বসানোর চেষ্টা করেছিল।

দ্য ডেইলি টেলিগ্রাফকে চার্লি বলেন, তার মনে হচ্ছিল কিছু একটা তার ডান হাতে কামড় দিচ্ছে এবং উনি সঙ্গে সঙ্গে পেছনে ফিরে তাকান এবং সজোরে হাঙরটির মুখে ঘুষি মারেন।

চার্লি আরো বলেন, তিনি হাঙরের মুখে ঘুষি মারার সঙ্গে সঙ্গে হাঙরটি পালিয়ে যায় এবং তিনি যত তাড়াতাড়ি সম্ভব তীরে চলে আসেন।

চার্লি এবং তার বন্ধুরা একসঙ্গে সার্ফিং করছিলেন। কিন্তু হাঙর আক্রমণের আগেই তার বন্ধুরা তীরে চলে এসেছিলেন।

এভোকা বিচের তীরে ‘হাঙর হতে সাবধান’ এমন সতর্ক বাণী থাকা সত্ত্বেও কি করে যে এই অল্প বয়সি ডাক্তার বিপদে পড়লেন তা সবার ধারণার বাইরে।

চার্লি বলেন, হাঙরের হাত থেকে বেঁচে তীরে ফেরার পর তার সব থেকে আগে যেটা মনে হয়েছে সেটা হল, তার মা বিষয়টি জানতে পারলে তাকে মেরেই ফেলবেন। কারণ তিনি ছুটি কাটানোর জন্য পৌঁছানো মাত্রই আহত হয়ে বসে আছেন।

চার্লির ডান হাতে হাঙরের দাঁতের দাগ ছাড়া তেমন কোনো ক্ষতচিহ্ন নেই। অ্যাম্বুলেন্স ডাকা বা তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার মতো কিছু হয়নি বলে চার্লি জানান।

এই ঘটনার পরে প্রায় এক দিন ধরে ওই বিচটি বন্ধ ছিল। পরে তা আবার খুলে দেওয়া হয়। তবে চার্লিকে আঘাত করা হাঙরটির এখন পর্যন্ত দেখা পাওয়া যায়নি।

Share Button
Previous মায়ের কোল থেকে পড়ে লরিচাপায় পিষ্ট শিশু
Next ভারতকে বিদায় করে সেমিফাইনালে বাংলাদেশ

You might also like

০ Comments

No Comments Yet!

You can be first to comment this post!

Leave a Reply