অনলাইন অপরাধ রোধ করতেই সিকুইরিটি অ্যাক্ট : জয়

অনলাইন অপরাধ রোধ করতেই সিকুইরিটি অ্যাক্ট : জয়

ঢাকা ১৬ এপ্রিল ২০১৮ (গ্লোবটুডেবিডি): ‘বক্তৃতা দিতে আমার ভালো লাগে না। আমি তরণদের কথা শুনতে চাই। তাদের সাথে কথা বলতে ভালো লাগে।’ প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও প্রযুক্তি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় রোববার তরুণ-তরুণীদের সাথে অনুষ্ঠিত এক মতবিনিময় সভায় এভাবেই নিজের কথা বলেন। সেন্টার ফর রিসার্চ অ্যান্ড ইনফরমেশন (সিআরআই)-এর আয়োজনে ‘লেটস টক’ শিরোনামে এ মতবিনিময় অনুষ্ঠানটি রাজধানীর একটি হোটেলে অনুষ্ঠিত হয়। এর আগে দুদিনব্যাপী বিপিও সম্মেলন উদ্বোধন করে তিনি বলেন, অনলাইনে যাতে কেউ অপরাধ ছড়াতে না পারে, সেজন্যই ডিজিটাল সিকিউরিটি অ্যাক্ট করা হয়েছে।

অনুষ্ঠানে ব্যক্তিগত পছন্দের বিষয়গুলো জানাতে গিয়ে সজীব ওয়াজেদ বলেন, আমি গিটার বাজাতে পছন্দ করতাম। কিন্তু পড়ালেখা ও কাজের চাপে একসময় তা বন্ধ করে দেই। এখন আবার গিটার বাজানো শুরু করেছি।গিটার বাজানো ছাড়াও কম্পিউটার নিয়ে কাজ করতে পছন্দ করেন জানিয়ে তিনি বলেন, ‘কম্পিউটার আমার খুব পছন্দের বিষয়। সুযোগ পেলেই কাজ করি কম্পিউটারে। এ ছাড়াও কম্পিউটার গেম খেলতে পছন্দ করি।’ সজীব ওয়াজেদ বলেন, সময় পেলে তিনি রাগ সঙ্গীত শোনেন। গান তার খুবই পছন্দ উল্লেখ করে তিনি বলেন, সুযোগ পেলে তিনি রাগ সঙ্গীত শোনেন। এ ছাড়াও ফটোগ্রাফি করতে ভালোবাসেন। তিনি বলেন, ‘সুযোগ পেলেই পরিবারকে সাথে নিয়ে সিনেমা দেখি। আমার পছন্দ অ্যাকশন ছবি। কিন্তু তাদের পছন্দ ভিন্ন। তাই আমরা তিনজন একসাথে কি সিনেমা দেখব তা বাছাই করতে বেশ কষ্ট হয়। ডিজনির সকল সিনেমা আমরা দেখে ফেলেছি।’

নিজ পরিবারের সাথে কাটানো সময় নিয়ে সজীব ওয়াজেদ বলেন, ‘আমি কোনভাবেই বুঝতে পারি না, বাবা-মা তার বাচ্চাকে লালন-পালন না করে কেনো কাজের লোকের কাছে রেখে যান। আমি এখনো আমার মেয়েকে রাতে নিজে পড়াই। আমার স্ত্রী এবং আমি মেয়েকে নিয়ে যাই যখন তার ফুটবল খেলা থাকে। সুযোগ পেলে আমার মেয়েকে ফুটবল প্র্যাকটিসের জন্যও আমি নিয়ে যাই।’

Share Button
Previous খাগড়াছড়িতে ২ ইউপিডিএফ কর্মীকে গুলি করে হত্যা
Next মালাগাকে হারিয়ে তিনে রিয়াল

You might also like

০ Comments

No Comments Yet!

You can be first to comment this post!

Leave a Reply