কোটা আন্দোলনের নেতাদেরকে হত্যার হুমকি: উত্তাল ঢাবি

কোটা আন্দোলনের নেতাদেরকে হত্যার হুমকি: উত্তাল ঢাবি

ঢাকা ১৬ মে ২০১৮ (গ্লোবটুডেবিডি):  কোটা সংস্কার আন্দোলনের নেতাদেরকে ‘হত্যার হুমকি’ দেয়ার ঘটনায় বিক্ষোভ করেছে শিক্ষার্থীরা। মঙ্গলবার দিবাগত রাতে পিস্তলসহ ছাত্রলীগ নেতারা হত্যার হুমকি দিয়েছেন বলে অভিযোগ করেছেন আন্দোলনকারীরা।শিক্ষার্থীরা জানান, মঙ্গলবার দিবাগত রাত দেড়টার দিকে ঢাবির মুহসীন হলে নুরুল হক নূরের কক্ষে পিস্তল নিয়ে ‘গুলি করে হত্যার হুমকি দেন কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি ইমতিয়াজ উদ্দিন বাপ্পি, মহসীন হল ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান সানী, চারুকলা অনুষদ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ফাহিম হাসান লিমন ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জ্যোতিসহ ২০-২৫ জন। তবে ‘হত্যার হুমকি’র অভিযোগ অস্বীকার করেছেন ইমতিয়াজ বাপ্পি। তিনি বলেন, ‘ফাহিমের ফেসবুক আইডিতে রিপোর্ট করার বিষয়ে জানতে গিয়েছিলাম।’এ ঘটনার প্রতিবাদে বুধবার দুপুর সোয়া ১২টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের করে আন্দোলনকারীরা।নুরুল হক নূর বলেন, কেন্দ্রীয় কমিটির (কোটা সংস্কার) যুগ্ম আহ্বায়ক রাশেদ আমার রুমে ছিল। এর মধ্যে চারুকলা অনুষদের ছাত্রলীগের সেক্রেটারি লিমন ফোন দিয়ে থ্রেট দেয় যে, হল থেকে নামিয়ে দেওয়া হবে। পিটিয়ে নামিয়ে দেওয়া হবে। আমরা নাকি সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলন করছি।তিনি বলেন, ‘এক পর্যায়ে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি ইমতিয়াজ উদ্দিন বাপ্পি কল নিয়ে বলেন, ছাত্রদলের সুলতান সালাউদ্দিন টুকুতে মারছি। তোদের মতো পোলাপানকে খেয়ে দিতে দুই সেকেন্ডও লাগে না। তোগোরে গুলি কইরা মারি নাই শুধু কিছু সিনিয়রের নিষেধ ছিল। তবে তোরা বাঁচবি না। কিছুদিন পর প্রজ্ঞাপনটা জারি হোক। দেখি তোদের কোন বাপ ঠেকায়।’তিনি আরও বলেন, ‘তার ১০ মিনিট পরে কক্ষে পিস্তল নিয়ে এসে বলে, তোরা মা-বাবার কাছ থেকে দোয়া নিয়ে নে। তোরা বাঁচবি না। তোদের গুলি করে মারব। আমাকে (নুরুল হক নুর) মারতেও আসে। তারা আমার মোবাইলও নিয়ে যায়। যাতে আমি রেকর্ড করতে না পারি। আমরা এখন জীবননাশের হুমকির মুখে আছি।’

Share Button
Previous আন্তর্জাতিক পরিবার দিবস উপলক্ষে বিআইআইটি’র সেমিনার
Next আগামী ৫ জুন শুরু হচ্ছে বাজেট অধিবেশন

You might also like

০ Comments

No Comments Yet!

You can be first to comment this post!

Leave a Reply