সরকারি হলো ৩৬ মাধ্যমিক বিদ্যালয়

সরকারি হলো ৩৬ মাধ্যমিক বিদ্যালয়

ঢাকা ৩১ মে ২০১৮ (গ্লোবটুডেবিডি): বেসরকারি আরও ৩৬টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়কে সরকারি করা হয়েছে। সোমবার এ বিষয়ে আদেশ জারি করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। মঙ্গলবার এ আদেশ শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ওয়েব সাইটে প্রকাশ করা হয়েছে। এ নিয়ে দেশে সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সংখ্যা দাঁড়াল ৪০৩টিতে।

নতুনভাবে সরকারি হওয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়গুলো হলো: ঘাটাইল গণ পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়, গোপালপুরের সূতী ভি এম পাইলট মডেল উচ্চবিদ্যালয়, ভূঞাপুর পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়, কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী জছি মিঞা মডেল উচ্চবিদ্যালয়, চিলমারীর থানাহাট এ ইউ পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়, ভূরুঙ্গামারী পাইলট উচ্চবিদ্যালয়, গাইবান্ধার সাঘাটার কাজী আজহার আলী মডেল উচ্চ বিদ্যালয়, গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া ইউনিয়ন ইনস্টিটিউশন (পাইলট), কিশোরগঞ্জের তাড়াইল পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়, পাকুন্দিয়া পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়, কুলিয়ারচর পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়, বরগুনার আমতলী এ কে মডেল পাইলট হাইস্কুল, পাথরঘাটা কে এম মডেল উচ্চ বিদ্যালয়, বেতাগী পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়, টাঙ্গাইলের মধুপুর রানি ভবানী মডেল উচ্চ বিদ্যালয়, পাবনার ফরিদপুরের বনওয়ারীনগর সি বি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়, রাজবাড়ীর কালুখালীর রতনদিয়া রজনীকান্ত মডেল উচ্চ বিদ্যালয়, বালিয়াকান্দি পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জের হাজী আবদুল জলিল উচ্চ বিদ্যালয়, হবিগঞ্জের লাখাইয়ের বামৈ উচ্চ বিদ্যালয়, আজমিরীগঞ্জ এ বি সি পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়, মৌলভীবাজারের কুলাউড়া নবীন চন্দ্র মডেল উচ্চ বিদ্যালয়, নাটোরের বাগাতিপাড়া পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়, গুরুদাসপুর পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়, নলডাঙ্গা উচ্চ বিদ্যালয়, সুনামগঞ্জের বিশ্বম্ভরপুর মডেল উচ্চ বিদ্যালয়, ঢাকার কেরানীগঞ্জের শাক্তা উচ্চ বিদ্যালয়, সাভার অধরচন্দ্র উচ্চ বিদ্যালয়, ভোলার লালমোহন মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়, শরীয়তপুরের ভেদরগঞ্জ হেডকোয়ার্টার পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়, গোসাইরহাট ইদিলপুর পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়, রাজশাহীর পবার নওহাটা উচ্চ বিদ্যালয়, পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জ সুবিদখালী রহমান ইসহাক পাইলট মাধ্যমিক উচ্চ বিদ্যালয়, বরিশাল বানারীপাড়া মডেল ইউনিয়ন ইনস্টিটিউশন (পাইলট), ঝালকাঠীর কাঠালিয়া পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয় এবং রাজাপুর পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়।

শিক্ষা মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, দেশের যে সব উপজেলায় কোনো সরকারি কলেজ ও মাধ্যমিক বিদ্যালয় নেই, সেগুলোতে একটি করে মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও কলেজ সরকারি করার উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। এরই ধারাবাহিকতায় বেসরকারি বিদ্যালয় ও কলেজকে সরকারি করা হচ্ছে।

আত্মকর্মসংস্থান সৃষ্টির লক্ষ্যে প্রশিক্ষণ শেষে সেলাই মেশিন বিতরনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। খুলনা জেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত এ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আলিম উদ্দিন।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন সরকারী আযমখান কমার্স কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর কালিপদ মজুমদার, বিএমএ খুলনার সাধারণ সম্পাদক ডাঃ মোঃ মেহেদী নেওয়াজ, সাংবাদিক ফারুক আহমেদ। আরো উপস্থিত ছিলেন জোবায়ের আহমেদ জবা, এস. এম. ফরিদ রানা, মহিলানেত্রী আঞ্জু মনোয়ার বেগম, জেলা পরিষদের সচিব মো. শামীম হাসান, সহকারী প্রকৌশলী মো. হাফিজুর রহমান খান, প্রশাসনিক কর্মকর্তা মো. মিজানুর রহমান, উপ-সহকারী প্রকৌশলী বিপ্লব কুমার বিশ্বাস, করোনেশন কারিগরী বিদ্যালয়ের তত্ত্বাবধায়ক আব্দুর রহিম।

Share Button
Previous বন্দুকযুদ্ধ নিয়ে বার্নিকাটের উদ্বেগ
Next রাজধানীতে স্বস্তির বৃষ্টি

You might also like

০ Comments

No Comments Yet!

You can be first to comment this post!

Leave a Reply