ফিনিক্স পাখির মতো জেগে উঠবে বিএনপি : ফখরুল

ফিনিক্স পাখির মতো জেগে উঠবে বিএনপি : ফখরুল

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, আমি দৃঢ়তার সঙ্গে বলতে চাই, বিএনপিকে ভাঙার ষড়যন্ত্রে কোনো দিনই তাদের (সরকার) ষড়যন্ত্র সফল হবে না। যতবার বিপর্যয় এসেছে ততবার বিএনপি জনগণকে সঙ্গে নিয়ে ঘুরে দাঁড়িয়েছে। দেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় দল বিএনপি বারবার বিপর্যয়ের মুখে ফিনিক্স পাখির মতো জেগে উঠেছে এবং নতুন জীবন লাভ করেছে। এবারও তেমনটি হবে।

বৃহস্পতিবার (২৪ জানুয়ারি) নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে জিয়াউর রহমান ও খালেদা জিয়ার ছোট ছেলে আরাফাত রহমান কোকোর চতুর্থ মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত দোয়া মাহফিলে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

বিএনপি হাসচিব বলেন, আজকে বিএনপিকে ঘিরে বহু ষড়যন্ত্র শুরু হয়েছে। চক্রান্ত হচ্ছে বিএনপিকে দুর্বল করার জন্য। চক্রান্ত হচ্ছে বিএনপিকে বিভক্ত করে তার শক্তিকে ছোট করে দেয়ার জন্য। কিন্তু দেশের মানুষ বিএনপিকে ভালোবাসে। দেশের মানুষ বাংলাদেশি জাতীয়তাবাদের রাজনীতিকে ধারণ করে। সে জন্যই বিএনপির প্রতি তাদের এত দুর্বলতা, বিএনপিকে তারা ভালোবাসে। সেই ভালোবাসাকে কাজে লাগিয়ে বিএনপিকে আরও শক্তিশালী করতে হবে।

মির্জা ফখরুল বলেন, আমাদের রাজনীতিকে বুঝে সেই রাজনীতির পক্ষে অত্যন্ত শক্তভাবে অবস্থান নিতে হবে। বাংলাদেশের মানুষের ঘরে ঘরে যেতে হবে। দলকে আরও সুসংগঠিত করতে হবে।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, আওয়ামী লীগ জনবিচ্ছিন্ন হয়ে এখন গণশত্রুতে পরিণত হয়েছে। তারা এখন জনগণ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। সে জন্য তারা একের পর এক গণবিরোধী কাজ করে চলেছে। ৩০ ডিসেম্বর ভোটের নামে তামাশা করেছে। মানুষের ভোটের অধিকারটুকুও কেড়ে নিয়েছে।

মির্জা ফখরুল বলেন, যে ভয়াবহ দানব গণতন্ত্রকে ধ্বংস করছে, তার বিরুদ্ধে দেশপ্রেমিক শক্তিগুলোকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। যারা আজ বাংলাদেশের জনগণের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে তাদের পরাজিত করতে হবে।

অনুষ্ঠানে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ডা. এজেডএম জাহিদ হোসেন, সেলিমা রহমান, সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, যুগ্ম মহাসচিব হারুনুর রশীদ, প্রচার সম্পাদক শহীদউদ্দিন চৌধুরী এ্যানী, কেন্দ্রীয় নেতা শিরীন সুলতানা, মীর নেওয়াজ আলী নেওয়াজ, হালিমা নেওয়াজ আরলি প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে সকালে বিএনপি মহাসচিবসহ নেতৃবৃন্দ বনানীতে কোকোর কবর জিয়ারত করেন।

২০১৫ সালের ২৪ জানুয়ারি ৪৫ বছর বয়সে মালয়েশিয়ায় হৃদরোগে মারা যান আরাফাত রহমান কোকো । মালয়েশিয়া থেকে ২৮ জানুয়ারি ঢাকায় এনে তাকে বনানী কবরস্থানে দাফন করা হয়।

Please follow and like us:
Previous মেকি / তাহমিনা বেগম
Next শুক্রবার জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী

You might also like

০ Comments

No Comments Yet!

You can be first to comment this post!

Leave a Reply